মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে বিকাশের পরিবর্তে রকেটকেই বেছে নেওয়া ভালো! কিন্তু কেনো, তা দেখুন!!

আসসালামু আলাইকুম!

আশাকরি আল্লাহর রহমতে সকলে ভালো আছেন। 

পোস্টের টাইটেল দেখে ইতোমধ্যে অনেকে হয়তো বুঝে গেছেন, আমি আজ কী লিখতে চাচ্ছি! 
অনেকে হয়তো বিষয়টি জানেন; আবার না জানা লোকের সংখ্যাও কম নয়, তাই সকলের উপকারার্থে আমার আজকের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস!

যুগের চাহিদায়, সময়ের বস্তবতায় আমরা সকলেই কমবেশি মোবাইল ব্যাংকিংয়ের সাথে জড়িত। 
জীবনের নানা প্রয়োজনের ক্ষেত্রে মোবাইল ব্যাংকিং অনেক বিষয়কে আমাদের জন্য সহজ করে দিয়েছে এবং সর্বোপরি অসাধারণ সেবা দিয়ে যাচ্ছে হরহামেশা।

আমাদের দেশে বিভিন্ন ব্যাংকের আওতায় অনেকগুলো মোবাইল ব্যাংকিং সেবা চালু আছে। 
তন্মধ্য থেকে বিকাশ ও রকেট সর্বাপেক্ষা বেশি প্রচলিত ও প্রসিদ্ধ। আবার এ দুইটির মধ্যে বিকাশ সবচে বেশি জনপ্রিয় ও পরিচিত। গ্রাহক সংখ্যার দিক দিয়েও বিকাশ সর্বাগ্রে।
এতক্ষণ পর্যন্ত সকলের জানা লেকচার রিপ্লাই করলাম; 

এবার আসি মূল পোস্টে:-

মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে আমি শুরু থেকেই বিকাশের পরিবর্তে রকেটকে বেছে নিয়েছি।
 কারণ, লেনদেনের ক্ষেত্রে বিকাশের তুলনায় রকেট অনেক বেশি সাশ্রয়ী; যদি সিস্টেম বুঝে লেনদেন করা যায়। তাই আমি সকলকে, বিশেষকরে স্টুডেন্টদেরকে সাজেস্ট করবো রকেট ব্যবহারের জন্য।
এবার আপনি হয়তো জিজ্ঞাস করবেন, সাশ্রয়ের সেই সিস্টেমটা কী?

আসলে সিস্টেম বলতে তেমন কিছুনা। শুধু ট্রানজাকশন ফী’র বিস্তারিত ভালোভাবে জানা এবং লেনদেনের সময় তা বিবেচনা করে সাশ্রয়ী দিকটা নির্বাচন করা। তাই আসুন, আমরা রেকেটের ট্রানজাকশন ফী বা লেনদেনের খরচ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিই; যাতে প্রয়োজনের সময় কম খরচে লেনদেন সেরে নিতে পারি।

প্রথমে নিচের স্ক্রীনশটটি দেখুন:-





আশাকরি অনেক মেধাবী ভাইয়েরা উপরোক্ত স্ক্রীনশট দেখেই সব বুঝে গেছেন। 
তারপরও সকলের সুবিধার্থে আরো পরিস্কার করে বলছি, 
যাতে সকলে এর থেকে উপকৃত হতে পারেন।
বিকাশে যেভাবেই লেনদেন করুন আর যত টাকা-ই করুননা কেনো, হাজারে ১৮.৫০ টাকা আপনার থেকে কাটবেই। বাকি ক্যাশইনের সময় বিলকুল না কেটে ক্যাশআউটের সময় পুরোটা একসাথে কেটে নেয়। তবে হাজারে ১৮.৫০ টাকা চার্জ না দিয়ে কোনোভাবেই বিকাশ থেকে বের করে আপনার হাতে টাকা আনতে পারবেননা।

কিন্তু রকেটের সিস্টেমটা একটু ভিন্ন! রকেট সম্পর্কে জানতে হলে প্রথমে যে বিষয়টা মাথায় রাখতে হবে, তা হলো রকেট একাউন্ট সাধারণত দুই ধরণের:-

 ১. এটিএম ফ্রি।
 ২. ক্যাশইন ফ্রি।

যেহেতু ক্যাশইন ফ্রি একাউন্টে ঝামেলা বেশি, তাই তা বাদ দিয়ে এটিএম ফ্রি একাউন্ট নিয়ে আলোচনা করবো।
এখন সবচে গুরুত্বপূর্ণ বা মূল আলোচনা শুরু করছি; অবশ্যই মনযোগ দিয়ে পড়ে বুঝার চেষ্টা করুন।
রকেট এটিএম ফ্রি একাউন্টে যখন ক্যাশইন করবেন, তখন প্রতি হাজারে ৯ টাকা কাটা হবে।
ক্যাশইন তো করলেন। এখন ক্যাশআউটের পালা।

ক্যাশআউট দুইভাবে করতে পারবেন।


১. রকেট এজেন্ট থেকে।
২. ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে।


যদি আপনি আপনার টাকা এজেন্ট থেকে তুলেন, তাহলে আবার হাজারে ৯টাকা কাটবে।
 তাহলে হাজারে সর্বমোট ১৮ টাকা কাটলো; যা বিকাশের তুলনায় ৫০ পয়সা কম।

আপনি হয়তো বলবেন, এই ৫০পয়সা বাচানোর জন্য বুঝি এতক্ষণ লেকচার দিলেন?!
আরে ভাই, একটু থামুন; আমি তো শেষ করিনি! বাকিটা এখন শুনুন।

আর যদি ঐ ১হাজার টাকা এটিএম বুথ থেকে তুলেন, তাহলে সম্পূর্ণ ফ্রি। 
সুতরাং বিকাশের তুলনায় আপনার ৯.৫০ টাকা বেচে গেলো ১ হাজার টাকায়।
এখন আপনি যদি এভাবে ৫হাজার টাকা লেনদেন করেন, তাহলে ৯.৫০*৫= ৪৭.৫০ টাকা বেচে গেলো। এভাবে ১৫ হাজার টাকা লেনদেন করলে ৯.৫০*১৫= ১৪২.৫০ টাকা বেচে গেলো।

সাশ্রয়ের সবচে বড় দিক হলো, আপনি যদি ক্যাশইন এজেন্ট থেকে না করে ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের কোনো ব্রাঞ্চ থেকে করেন, তাহলে ক্যাশইন করার সময় হাজারে যে ৯.৫০টাকা কাটার কথা ছিলো তা আর কাটবেনা; বরং যেকোনো এমাউন্ট ক্যাশইনের জন্য মাত্র ১০টাকা কাটবে।
 তাহলে ১৫ হাজার টাকা লেনদেনে কত টাকা আপনার খরচ হলো ?
= মাত্র ১০টাকা। অর্থাৎ ক্যাশইন করার সময় যে ১০টাকা কেটেছে।
 আর এটিএম বুথ থেকে ক্যাশআউট তো সম্পূর্ণ ফ্রি-ই।

আশাকরি, আমার এই পোস্ট দ্বারা অনেকে উপকৃত হবেন, যদিও অনেকে বিষয়টি জেনে থাকবেন। 
তাই অনুরোধ থাকবে, নিজে জানার কারণে খারাপ মন্তব্য করে নিরুৎসাহিত করবেননা।
ওহ, রকেটের আরো দু’টি অতিরিক্ত সুবিধা/লাভের কথা উল্লেখ করতে তো ভুলেই গিয়েছিলাম। 

দু’টি হল:-



১. NexusPay অ্যাপের মাধ্যমে মোবাইল রিচার্জ করলে ৫% ক্যাশব্যাক অর্থাৎ হাজারে ৫০টাকা ক্যাশব্যাক। তাই যারা রিচার্জ ব্যবসা করেন, তারা NexusPay অ্যাপের মাধ্যমে রকেট থেকে দিগুণ লাভবান হতে পারেন।


২. NexusPay অ্যাপে অন্যকে ইনভাইট করে প্রতি রেফারে ৫০টাকা করে আনলিমিটেড ইনকামও করতে পারবেন; যা সরাসরি আপনার রকেট একাউন্টে জমা হবে।


0 Comment "মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে বিকাশের পরিবর্তে রকেটকেই বেছে নেওয়া ভালো! কিন্তু কেনো, তা দেখুন!!"

Post a Comment